খাগড়াছড়িতে ‘হঠাৎ কান্না’, অজ্ঞান ৭৫

এপ্রিল ১৮, ২০১৭, ৪:৩৬ অপরাহ্ণ
খাগড়াছড়ির গুইমারা উপজেলায় হঠাৎ করেই গণহারে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

সোমবার থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত উপজেলার প্রত্যন্ত তৈ-মথাং গ্রামের অন্তত ৭৫ জন নারী ও পুরুষ অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় দয়া কুমার ত্রিপুরা জানান, সোমবার সকাল থেকে ওই গ্রামের মানুষেরা একে অন্যকে জড়িয়ে ধরে কান্নাকাটি শুরু করেন। লোক দেখলেই তারা পালিয়ে যাচ্ছেন ও নানা রকম পাগলামি করতে শুরু করেন। এভাবে এক পর্যায়ে তারা অজ্ঞান হয়ে পড়তে থাকেন।

রোগীদের স্বজন গিরিবালা ত্রিপুরা, রাবাম ত্রিপুরা জানান, ঘটনার তিন দিন আগে এক পাহাড়ি বৈদ্য গ্রামবাসীর কাছ থেকে জনপ্রতি ১শ’ টাকা করে নেন। সবাই দিলেও দু’জন টাকা দিতে রাজি হননি।

তারা জানান, সে সময় বৈদ্য বলেছিলেন- সবাই টাকা না দিলে গ্রামবাসী পাগলামী শুরু করবে।

রোগীর স্বজনদের ধারণা, বৈদ্যর জাদুমন্ত্রে গ্রামবাসীরা পাগলামী ও অসুস্থ হতে শুরু করেছেন।

খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার নয়ন ময় ত্রিপুরা জানান, সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ১৫ জন এবং মঙ্গলবার সকালে আরও ১৫ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

তিনি জানান, এটি একটি গণমনস্তাত্ত্বিক রোগ। তারা কয়েক দিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠবেন। আতংকিত হওয়ার কিছু নেই।

পড়া হয়েছে ১৭৩ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ