অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিসে পায়ে পচন

অক্টোবর ১২, ২০১৫, ৫:৫৫ অপরাহ্ণ

ডায়াবেটিসে শরীরে ইনফেকশনের প্রকট বেড়ে যায়। যেমন- ফোড়া, কার্বংকল, বয়েল, অপারেশনের পর ঘা না শুকানো এবং গ্যাংগ্রিন বা পচন ইত্যাদি।
ডায়াবেটিস রোগীদের ইনফেকশন ও গ্যাংগ্রিন বেশি হয় কেন-

* ডায়াবেটিস রোগীর রক্তে সুগার বেশি থাকার ফলে এটি জীবাণুর খাদ্য হিসেবে কাজ করে এবং জীবাণুর বংশ বৃদ্ধি করে।
* ডায়াবেটিস রোগীর মাঝারি ও ক্ষুদ্র রক্তনালিগুলো শুকিয়ে যায় এবং রক্ত চলাচল কমে যায় এবং এর জন্য ঘা শুকাতে চায় না।
* অনেক দিন ডায়াবেটিসে ভুগলে নার্ভ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে পায়ে বা হাতের অনুভূতি কমে যায়। এ কারণে বার বার আঘাতে ক্ষতের সৃষ্টি হয়।
* ডায়াবেটিস হলে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় ফলে ইনফেকশন ও গ্যাংগ্রিন দেখা যায়।
ডায়াবেটিস ফুট/গ্যাংগ্রিন হলে কী চিকিৎসা করতে হয়-

* ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

* পায়ে যাতে বার বার আঘাত না লাগে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

* অ্যান্টিবায়োটিক খেতে হবে।
* পায়ে চলাচল বাড়াতে হবে।
* ক্ষতস্থানে চামড়া লাগাতে হবে।
মনে রাখবেন সময়মতো ও সঠিকভাবে চিকিৎসা না করলে ডায়াবেটিস রোগীর ইনফেকশন খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়বে। এমনকি রক্তে জীবাণু ঢুকে হার্ট, ফুসফুস, কিডনি ও ব্রেনসহ শরীরের প্রধান প্রধান অঙ্গ অকার্যকর করে দিতে পারে এবং রোগী মৃত্যুবরণও করতে পারে।
চিকিৎসায় অবহেলা করলে পরিণাম কী হতে পারে-
* পা বা হাত কেটে ফেলতে হতে পারে।
* ইনফেকশন দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে।
* সেপটিসেমিয়া হতে পারে।

অধ্যাপক ডা. ইফফাত আরা
গাইনি রোগ বিশেষজ্ঞ, বিভাগীয় প্রধান
ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল।
চেম্বার : আল-রাজী হাসপাতাল, ফার্মগেট, ঢাকা।jjdin

পড়া হয়েছে ১৩৫৭ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ