ঘরে বা ফার্মেসিতে উচ্চ রক্তচাপ পরিমাপ নয়

অক্টোবর ৩১, ২০১৭, ১২:৩১ অপরাহ্ণ

উচ্চ রক্তচাপকে নীরব ঘাতক বলা হয়। নীরবে এটি শরীরের অনেক ক্ষতি করে। অনেক সময় কোনো লক্ষণ ছাড়াই উচ্চ রক্তচাপ আমাদের থাকতে পারে। হঠাৎ করেই একদিন জটিলতা শুরু হয়। তখন আর কিছু করার থাকে না। ঘরে বা ফার্মেসিতে রক্তচাপ না মেপে অবশ্যই রেজিস্টার্ড ডাক্তারের কাছে গিয়ে রক্তচাপ পরিমাপ করতে হবে। কোনো অবহেলাই এক্ষেত্রে কাম্য নয়।

কারও যদি ওজন বেশি হয়, উচ্চ রক্তচাপের পারিবারিক ইতিহাস থাকে, ধূমপান ও মদপানের অভ্যাস থাকে, ডায়াবেটিস ও রক্তে চর্বির আধিক্য থাকে তার অবশ্যই  নিয়মিত রক্তচাপ পরীক্ষা করতে হবে। এছাড়া গর্ভাবস্থায় যতবারই চিকিৎকের কাছে যাওয়া হোক না কেন- রক্তচাপ মাপতেই হবে।

অনেক অসুখে লক্ষণ দেখেই রোগ ডায়াগনসিস করা যায়। কিন্তু উচ্চ রক্তচাপ এমন রোগ নয়। অনেক সময় রোগীর কোনো উপসর্গই থাকে না। দিনের পর দিন নিজের অজান্তে বয়ে নিয়ে বেড়ান এই মারাত্মক রোগ। হঠাৎ করেই হৃদরোগ বা স্টোকের মতো জটিল রোগ নিয়ে হাজির হন চিকিৎসকের কাছে। তখন অনেক দেরি হয়ে যায়। উচ্চ রক্তচাপ তাই নীরব ঘাতক। নীরবেই শরীরের ক্ষতি করতে থাকে।

আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষই স্বাস্থ্য বিষয়ে অসচেতন। চিকিৎসকের কাছে সহজে যেতে চান না। এটা মোটেও ঠিক নয়। মাথাব্যথা, ঘাড়ব্যথা, ঘুম না হওয়া, বুক ধড়ফর করা, পা ফুলে যাওয়া, শ্বাসকষ্ট ইত্যাদি সমস্যা হলে দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যাওয়া উচিত। উচ্চ রক্তচাপের ওষুধ চিকিৎসক দিলে নিয়মিত খাওয়া উচিত। একটু অবহেলাই অনেক ক্ষতির কারণ হতে পারে। নিয়মিত ডাক্তারের চেকআপে থাকলে জটিলতা প্রতিরোধ করা সম্ভব।

লেখক-
ডা. মো. ফজলুল কবির পাভেল
মেডিসিন বিভাগ
রাজশাহী মেডিকেল কলেজ

পড়া হয়েছে ৬৬ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ