বান্দরবানের আলীকদম-থানচি: মেঘের কোলে পাহাড় হাসে

নভেম্বর ২, ২০১৭, ১:৪২ অপরাহ্ণ

দেশের ভ্রমণ পিপাসু মানুষদের আগ্রহের কেন্দ্রে আছে দেশের উঁচু সড়ক বান্দরবানের থানচি-আলী কদমের ডিম পাহাড়। শীতে কুয়াশা আর বর্ষায় মেঘের কারণে পর্যটকরা হিমালয় মনে করেন ডিম পাহাড়কে। পাহাড়ে ১১টি ক্ষুদ নৃ-তাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর সঙ্গে বাঙ্গালী জনগোষ্ঠী বসবাস করছেন মিলেমিশে।

পর্বতচূড়া,ঝিরি,ঝর্ণা,পাহাড়ের সাথে হেলান দেওয়া সাড়ি সাড়ি মেঘ এবং দুই পাহাড়ে মাঝে বুক ছিঁড়ে বয়ে যাওয়া সাঙ্গু-মাতামূহুরী নদী এ জনপদকে করে তুলেছে অনন্য সুন্দর। খুব কাছ থেকে মেঘ দেখা আর উঁচু থেকে চারিদিকের পাহাড়ি এলাকা দেখার সুযোগ মেলে ডিম পাহাড়ে। এখানে রয়েছে বাংলাদেশের সবচেয়ে উঁচু সড়ক, যা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় তিন হাজার ফুট উঁচুতে অবস্থিত। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের উত্তাল জলরাশির, সমুদ্রের ঢেউ ও মিয়ানমারের নৌযান দেখা যায় ডিম পাহাড়ের চুড়ায় দাঁড়ালে।

এখানে একইদিনে গ্রীষ্ম, বর্ষা ও শীতের আমেজ পাওয়া যায়। প্রচন্ড গরম, ঝুম ঝুম বৃষ্টি আর রাতে কম্বল টানা শীতের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকার পর্যটক ভীড় জমায়।

আলী কদম উপজেলা থেকে ৩০ কিলোমিটারের দুরের থানচি-আলী কদমে ডিম পাহাড়ের পুরোটাই পাহাড়ি পথ। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়া বাস টার্মিনাল থেকে আলী কদমের বাস অথবা চাঁদের গাড়িতে যেতে হবে আলী কদম। সেখান থেকে চাঁদের গাড়ি অথবা মোটরসাইকেলে যেতে হয় ডিম পাহাড়। পুরোটা পথ জুড়ে সবুজ পাহাড় আর মেঘের কোল ঘেঁষে থাকায় প্রায় এক ঘণ্টার রোমাঞ্চকর ভ্রমণে ক্লান্তি স্পর্শ করতে পারে না পর্যটকদের।

এখানে নিরাপত্তায় নিয়জিত আছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। পর্যটকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সেনাবাহিনী কয়েক দফা তল্লাশি ও জিজ্ঞাসাবাদ করেন আগতদের।

চ্যানেল আই

পড়া হয়েছে ৫৯ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ