কোনো অনলাইন অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলে কী করবেন 

নভেম্বর ২৩, ২০১৭, ১১:৪৭ পূর্বাহ্ণ

অন্য যেকোনো সময়ের তুলনায় বর্তমানে সাইবার অপরাধের হার সবচেয়ে বেশি। আর তাই হরহামেশাই হ্যাকিংয়ের শিকার হচ্ছেন অনেকে। ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে শুরু করে ইমেইল অ্যাকাউন্ট কিংবা কর্মস্থলের অ্যাকাউন্ট সবই হ্যাক হতে পারে। তাছাড়া ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট তো আছে হ্যাকারদের তালিকার শীর্ষে।

সাধারণত হ্যাকিংয়ের শিকার হলে অ্যাকাউন্ট পুনরুদ্ধার করা অনেক ক্ষেত্রেই সম্ভব হয় না। কিছু ক্ষেত্রে অ্যাকাউন্টে যথেষ্ট পরিমাণে নিরাপত্তা ব্যবস্থা যুক্ত থাকলে অ্যাকাউন্ট পুনরায় ফিরে পাওয়া সম্ভব হতে পারে।

যেকোনো অনলাইন অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি বিভিন্ন ব্যক্তিগত তথ্য হ্যাকারদের হাতে চলে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে। এসব ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করে পরবর্তীতে হ্যাকাররা আরও বড় ধরনের ক্ষতি করতে পারে। তাই প্রথম থেকেই অনলাইন অ্যাকাউন্টে ব্যক্তিগত তথ্য প্রদানের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে হবে।

হ্যাকিংয়ের বিষয়ে অবহিত করুন

হ্যাকিংয়ের শিকার হলে প্রথমেই সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করতে হবে। গুগল, অ্যাপল কিংবা মাইক্রোসফট, সবারই রয়েছে অ্যাকাউন্ট হ্যাকের তথ্য প্রদানের জন্য আলাদা পেজ।

রিপোর্ট করার পর অ্যাকাউন্ট রিকভার করার উপায় জানিয়ে যোগাযোগ করতে পারে সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইট। সেক্ষেত্রে উল্লিখিত উপায় অবলম্বন করে পুনরায় অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে মোবাইল নাম্বার, বিকল্প ইমেইল ঠিকানা কিংবা কখনও কখনও জাতীয় পরিচয়পত্রের স্ক্যান কপি প্রয়োজন হতে পারে আপনার পরিচয় নিশ্চিত করার জন্য।

পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন

অ্যাকাউন্টে পুনরায় প্রবেশ করতে সক্ষম হলে প্রথম কাজটিই হবে পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করা। এক্ষেত্রে এমন কোনো পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন যা এর আগে কখনও ব্যবহার হয়নি। নতুন পাসওয়ার্ডে পূর্বের কোনো পাসওয়ার্ডের অংশবিশেষও ব্যবহার করা উচিত না। পুরনো পাসওয়ার্ড যদি অন্য কোনো অ্যাকাউন্টে ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে সেখান থেকেও পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে ফেলুন।

পাসওয়ার্ড তৈরির সময় একটু কঠিন এবং সহজে অনুমান করা সম্ভব নয়, এমন পাসওয়ার্ড বেছে নিন। পাসওয়ার্ডে ক্যাপিটাল ও স্মল লেটারের পাশাপাশি নাম্বার এবং স্পেশাল ক্যারাক্টার ব্যবহার করুন। পাসওয়ার্ডে ফোন নাম্বার ব্যবহার থেকে বিরত থাকাই ভালো।

অনেক সময় রেগুলার ইমেইল ও ফোন নম্বর কোনো অ্যাকাউন্টের ইউজার নেইম হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে হ্যাকার সহজেই এন্ট্রি পেয়ে যায়, বিকল্প ফোন নম্বর ও বিকল্প ইমেইল ইউজার নেইম হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

সব সেশন থেকে লগআউট করুন

পুনরায় লগইন করার পর চেক করে দেখুন আর কোন কোন ডিভাইস থেকে আপনার অ্যাকাউন্টে লগইন করা রয়েছে। ফেসবুক বা গুগলসহ প্রায় সবখানেই এই সুবিধা রয়েছে। আপনার ডিভাইস ছাড়া অন্য কোনো ডিভাইসে লগইন করা থাকলে এখান থেকে তাৎক্ষনিকভাবে অন্য সেশনগুলো লগআউট করে দিন।

তথ্যের পরিবর্তন যাচাই করুন

অ্যাকাউন্টে থাকা বিভিন্ন ব্যক্তিগত এবং নিরাপত্তা সংক্রান্ত তথ্য হ্যাকার পরিবর্তন করেছে কিনা যাচাই করে দেখুন। সাধারণত কোনো অ্যাকাউন্ট হ্যাক করলে হ্যাকাররা নাম, নিরাপত্তা প্রশ্ন, ব্যাকআপ ইমেইল, মোবাইল নাম্বার এগুলো পরিবর্তন করে ফেলে। কোনো তথ্যে পরিবর্তন দেখলে দ্রুত ঠিক করে নিন। অন্যথায় এর মাধ্যমে আবারও হানা দিতে পারে হ্যাকার। এর মাধ্যমে হ্যাক হতে পারে অন্যান্য অন্যান্য অ্যাকাউন্টও।

পড়া হয়েছে ৩৩ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ