মানবাধিকার রক্ষার দায়বদ্ধতায় ‘নিখোঁজ’ মানুষেরা ফিরুক ঘরে

ডিসেম্বর ১০, ২০১৭, ১০:২০ পূর্বাহ্ণ

‘কোনো একজনের মানবাধিকারের জন্য পাশে দাঁড়ান’ এই প্রতিপাদ্যকে ধারণ করেই ২০১৬ সালের ১০ ডিসেম্বর পালিত হয় বিশ্ব মানবাধিকার দিবস।

বছর ঘুরে আবারো এসেছে মানবাধিকার দিবস পালনের দিনটি। বিশেষ এ দিনে মানবাধিকার নিয়ে সরাসরা কাজ করা দুইজন বিশিষ্ট ব্যক্তি বলছেন, মানবাধিকার রক্ষারর জন্যই  ‘নিখোঁজ’ মানুষদের ফিরে আসাটা এখন আগামীর দায়বদ্ধতা।

গত এক বছরে দেশে মানবাধিকার রক্ষায় বহুমাত্রিক ‘জয়গান’ আমরা বিভিন্ন সভা সেমিনার ও কর্মসূচিতে লক্ষ্য করেছি। তারপরেও  দৈনন্দিন খবরের ভিড়ে বারবারই খবরের শিরোনাম হয়েছে ‘নিখোঁজ’ মানুষেরা।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠান কর্মকর্তা রিয়াসাত এলাহী আতিফ, রাজনীতিক সৈয়দ আনোয়ার সাদাত ও আমিনুর রহমান, প্রবাসী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইশরাক, সাংবাদিক উৎপল দাস,  নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সোসিওলজি অ্যান্ড পলিটিক্যাল সায়েন্স এর শিক্ষক ড. মুবাশ্বের হাসানের পর সর্বশেষ নিখোঁজের তালিকায় যুক্ত হন ভিয়েতনামে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত মারুফ জামান।

মানুষ নিখোঁজের এইসব খবর সার্বিক মানবাধিকার রক্ষার প্রশ্নে যেন প্রশ্নবিদ্ধ এক বাস্তবতা।

এমন বাস্তবতায় গত ২৯ আগস্ট এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে আমাদের জাতীয় মানবাধিকার কমিশন।

সেখানে কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেন, ‘অপহরণ বা গুমের শিকার হওয়া মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। যেহেতু জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব তাই, নিখোঁজ ব্যক্তিদের দ্রুত খুঁজে বের করে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া ও ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করার আহ্বান জানাচ্ছি।’

কিন্তু জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের এই আহ্বানের পরেও ঘটেছে নিখোঁজের ঘটনা!

হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের সভাপতি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ‘নিখোঁজের খবরগুলো উদ্বেগের। তবে এইসব নিখোঁজের মধ্যে  কেউ জঙ্গিবাদে সাথে জড়িয়ে নিখোঁজ হচ্ছে কিনা ? কিংবা কেউ অন্য কোনো কারণে ‘নিখোঁজ’ হচ্ছে কিনা তা সঠিক তথ্য দিয়ে সরকারকে তুলে ধরতে হবে।’

“তা না হলে এইসব নিখোঁজের ঘটানায় মানুষ বিভ্রান্ত ও ভীতিকর অবস্থার মধ্যে পড়বে। আর মানবাধিকার রক্ষার দায়বদ্ধতা থেকে আমাদের বলতেই হবে, নিখোঁজ মানুষদের খুঁজে বের করে তাদের পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেয়াই রাষ্ট্র ও সরকারের দায়িত্ব।”

চ্যানেল আই

পড়া হয়েছে ১২৩ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ