বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

জানুয়ারি ১১, ২০১৮, ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ

মামলার বাদী পরপর সাত কার্যদিবস আদালতে উপস্থিত না থাকলেও বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম ও প্রকাশক ময়নাল হোসেন চৌধুরীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে লালমনিরহাটের একটি আদালত। নিয়ম অনুযায়ী, আদালতে দাখিল করা যে কোনো মামলায় পরপর তিন কার্যদিবস বাদী আদালতে অনুপস্থিত থাকলেই মামলা খারিজ হয়ে যায়। লালমনিরহাটের ৪ নম্বর আমলি আদালতের বিচারক মো. আফাজ উদ্দিন ২ জানুয়ারি এই পরোয়ানা জারি করেন। লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন ২০১৪ সালে বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক, প্রকাশকসহ তিনজনের বিরুদ্ধে এই মানহানির মামলা করেছিলেন। মামলার অন্য আসামি বাংলাদেশ প্রতিদিনের লালমনিরহাট প্রতিনিধি রেজাউল করিম মানিক। বাদী আদালতে উপস্থিত না থাকার পরও গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করার বিষয়ে ফৌজদারি আইন বিশেষজ্ঞ ও আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শ ম রেজাউল করিম বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘আদালতে করা মামলার ক্ষেত্রে কোনো আইনসংগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা ছাড়া যদি বাদী একাধিক ধার্য তারিখে অনুপস্থিত থাকেন, তাহলে মামলাটি খারিজ হবে। এই বিধানের ব্যত্যয় ঘটিয়ে মামলার কার্যক্রম অব্যাহত রাখা হলে তা হবে আইনের পরিপন্থী। বাংলাদেশ প্রতিদিনের বিরুদ্ধে করা এই মামলার ক্ষেত্রে বাদী যেহেতু একাধিকবার অনুপস্থিত ছিলেন, সে কারণে মামলাটি খারিজ না করে আইন পরিপন্থীভাবে মামলাটিকে চলমান রাখা হয়েছে, যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। এ মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হতে পারে না।’ ২০১৪ সালের ৯ এপ্রিল বাংলাদেশ প্রতিদিনের প্রথম পৃষ্ঠায় ‘সাবেকদের আমলনামা : রেশন ডিলার সাবেক প্রতিমন্ত্রী মোতাহারের শত কোটি টাকা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের জেরে এ মামলাটি করেন মোতাহার হোসেন। প্রতিবেদন প্রকাশের ৪০ দিন পর মামলাটি করা হয়েছিল।

লালমনিরহাট : দেশের সর্বাধিক প্রচারিত পত্রিকা বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজামের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক মন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু, রংপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলা, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল ফাত্তাহ, জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাহবুবুল আলম মিঠু, জেলা জাসদের সভাপতি খোরশেদ আলম, চেম্বারের পরিচালক সাইফুল ইসলামসহ জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও জেলা মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম।

লক্ষ্মীপুর : গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে লক্ষ্মীপুর প্রেস ক্লাব, সাংবাদিক ইউনিয়ন, জেলা রিপোর্টার্স ক্লাবসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা পৃথক পৃথক বিবৃতি দিয়েছেন। প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়েছেন সাবেক সভাপতি হোসাইন আহমদ হেলাল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. জহির উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস নয়ন।

bdpratidin

পড়া হয়েছে ৪২ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ