কেন অবহেলার শিকার হয়েই চলে যেতে হয় বংশীবাদক রাজাদের…

ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৮, ৩:৪২ অপরাহ্ণ

স্টেডিয়ামের এক বাঘমামার সঙ্গে প্রয়াত বংশীবাদক রাজা। ফাইল ছবি

 একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে তার হাতে গর্জে উঠত অস্ত্র। তারপর সঙ্গী করেছিলেন বাঁশের বাঁশিকে। বাংলাদেশের যে কোনো ভেন্যুতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ হচ্ছে আর বংশীবাদক রাজা মোহাম্মদ আলাউদ্দিন খান থাকবেন না এটা যেন অসম্ভব। তার বাঁশির সঙ্গে নেচে উঠেন দর্শকরা। কিন্তু জানেন, অসংখ্য দর্শকদের আনন্দ দেওয়া এই মানুষটি চলে গেছেন নিভৃতেই! ছিলনা চিকিৎসার টাকা। সহযোগিতা চেয়েও পাননি কোথাও।

বাংলাদেশের স্টেডিয়ামে টাইগার শোয়েব, টাইগার মিলনদের মতই তুমুল জনপ্রিয় এই বংশীবাদক রাজা গত ১ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার না ফেরার দেশে চলে গেছেন। অনেকদিন ধরেই তিনি লিভার, ডায়াবেটিসসহ নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। স্টেডিয়ামের গ্যালারি মাতানো এই মানুষটি কারও সাহায্য চেয়েও পাননি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর।

রাজার পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কাছে রাজার চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্য চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু তাতে সাড়া মেলেনি। অসুস্থ রাজার খোঁজও কেউ নেয়নি। ত্রিদেশীয় সিরিজের সময় নাকি সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছিলেন জাতীয় দলের ওপেনার তামিম ইকবাল এবং পেসার রুবেল হোসেন। কিন্তু সেই সহায়তা গ্রহণের সুযোগ হয়নি মুক্তিযোদ্ধা রাজার। তার আগেই সৃষ্টিকর্তা তাকে দুনিয়ার দুঃখ দুর্দশা থেকে মুক্তি দিয়েছেন।

এমন নয় যে দেশের ক্রিকেট খুব দরিদ্র। ক্রিকেটবিশ্বের ধনী বোর্ডগুলোর অন্যতম বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। ক্রিকেট যেমন ক্রিকেটার আর দর্শক ছাড়া মূল্যহীন, তেমনই গ্যালারির সেই বাঘের দল কিংবা বংশীবাদক রাজাও কিন্তু ক্রিকেটের অংশ হয়ে গেছেন। নিজেদের ব্যক্তিগত কাজ ফেলে দলকে উৎসাহ জানাতে তারা ছুটে যান মাঠে। দল ভালো করলে জাতীয় পতাকা হাতে গর্জে ওঠেন, আর খারাপ করলে তাদের চোখে দেখা যায় অশ্রু।

গত বছরের শেষের দিকে শ্রীলঙ্কা জাতীয় ক্রিকেট দলের ‘ট্রেডমার্ক’ সাপোর্টার গায়ান সেনানায়েককে নিজের বিয়েতে দাওয়াত করেছিলেন বিরাট কোহলি। তাকে একবার বিমান ভাড়াও দিয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক। এগুলোই সৌজন্যতা; পারস্পরিক সৌহার্দ্য। কিংবা ভারতের শচীন ভক্ত সুধীর গৌতমকে চেনেন না এমন কি কেউ আছেন? এসব সমর্থকদের প্রতি ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের দায়িত্ববোধ থাকা উচিত। তারাও এদেশের ক্রিকেটের অন্যতম চালিকাশক্তি। শেষে একটাই কথা থাকবে, এভাবে দুর্দশায় পড়ে কোনো রাজা যেন আর হারিয়ে না যান…। মৃত্যুর সময় দেশের ক্রিকেটের হয়ে কেউ যেন অন্তত তাদের পাশে দাঁড়ায়…।

পড়া হয়েছে ১১৬ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ