আগামী ১০ বছরে টেস্ট ক্রিকেট হবে ৫ দলের খেলা!

ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৮, ৬:৫৮ অপরাহ্ণ

টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে বেশ অনেকদিন ধরেই চলছে বিতর্ক। কেউ বলছেন, ৫ দিনের ক্রিকেট এখন আর চলে না; এটাকে ৪ দিনে কিংবা ৩ দিনে নামিয়ে আনা হোক। আবার কেউ বলছেন, টি-টোয়েন্টির যুগে ধীরে ধীরে টেস্ট ক্রিকেটটাই বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু ক্রিকেটের শাস্ত্রীয় বিশেষজ্ঞরা টেস্ট ফরম্যটে কোনো পরিবর্তন আনতে নারাজ। এই পরিস্থিতিতে নতুন এক মন্তব্য করে আলোড়ন তুললেন সাবেক ইংলিশ ব্যাটসম্যান কেভিন পিটারসেন।

টুইটারে পিটারসেন লিখেছেন, ‘আমি বলে দিলাম, আগামী দশ বছরে টেস্ট ক্রিকেট হবে পাঁচ দলের খেলা। ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, ভারত পাকিস্তান এবং অস্ট্রেলিয়া ছাড়া আর কোনো দল টেস্ট খেলতেই পারবে না। তাদের বিপক্ষে এই পাঁচ দল টেস্ট খেলতে চাইবে না। তখন আমার এই টুইটের কথা সবাই স্মরণ করবে।’ 

পিটারসেনের কথাটা বেশ অহংকারসুলভ হয়ে গেলেও এতে বাস্তবতা আছে। এখনই ক্রিকেটের বড় শক্তিগুলো জিম্বাবুয়ে, বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজের মত দলের বিপক্ষে টেস্ট খেলতে চায় না। চাইলেও সেটা এক ম্যাচ থেকে সর্বোচ্চ ২ ম্যাচ হতে পারে। অবাক করা ব্যাপার হলো, পিটারসেনের তালিকায় নিউজিল্যান্ডের নামও নেই! যদিও টেস্ট ক্রিকেটে নিউজিল্যান্ড এত দুর্বল দল নয়।

টেস্ট প্লেয়িং দলগুলোর জন্য ম্যাচ খেলার দিক দিয়ে সমতা আনার দাবি অনেকদিনের। কিন্তু বাস্তবতা হলো, আইসিসি চাইলেও বড় দলগুলো নিচের সারির দলের সঙ্গে টেস্ট খেলতে চায় না। ২০১৭ সালে প্রথমবারের মত ভারতে টেস্ট সফরে গিয়েছিল বাংলাদেশ। টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার ১৭ বছর পর সেটা ছিল ভারতের মাটিতে বাংলাদেশের প্রথম একমাত্র টেস্ট খেলা। এরপর বাংলাদেশের মাটিতে ৯ বছর পর অস্ট্রেলিয়া আসে। সেটাও অনেক ঝামেলার পর। পিটারসেনের ভবিষ্যদ্বানী মিথ্যা প্রমাণ করার দায়িত্ব এখন আইসিসির।

kalerkontho

পড়া হয়েছে ১৪২ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ