বিমান বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণ কার হাতে?

মে ৪, ২০১৮, ১০:৫৩ অপরাহ্ণ

মন্ত্রীকে না জানিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার পুনঃনিয়োগের ঘটনা শিষ্টাচার বহির্ভূত ও দুঃখজনক বলে মনে করছেন এভিয়েশন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, এই ঘটনার মধ্য দিয়ে বিমানের নিয়ন্ত্রণ কার হাতে তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। ১৮ এপ্রিল এক অনুষ্ঠানে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল।জানা যায়, মন্ত্রীকে না জানিয়েই ১৭ই এপ্রিল পরিচালনা বোর্ড বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে এএম মোসাদ্দিক আহমেদকে পুনরায় এক বছরের জন্য নিয়োগ দিলে ক্ষুব্ধ হন বিমানমন্ত্রী। এরপর থেকেই বিমানের নিয়ন্ত্রণ কার হাতে তা নিয়ে নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।
২০০৭ সালে সরকারি করপোরেশন থেকে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রূপান্তরিত হয় বিমান বাংলাদেশ। সেই থেকে পরিচালনা পর্ষদের মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে আসছে সংস্থাটি। পাবলিক কোম্পানি হলেও প্রতিষ্ঠানটির শতভাগ মালিকানা রাষ্ট্রের। তাই এ ব্যবস্থাপনা পরিচালকের নিয়োগের বিষয়টি মন্ত্রীকে জানানো উচিৎ বলেই মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।বাংলাদেশের মনিটরের সম্পাদক কাজী ওয়াহিদুল আলম বলেন, যেহেতু মন্ত্রী বোর্ডের মেম্বার নয় সেই জন্য বোর্ড তাকে জানানো প্রয়োজন মনে করেননি। আইনগতভাবে তারা ঠিক আছে। আবার মন্ত্রী যেটা বলছে সেটিও উড়িয়ে দেয়া যাবে না, কারণ যেকোনো সমস্যা হলে জবাবদিহিতা মন্ত্রীকেই দিতে হয়।বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. এম এ মোমেন বলেন, এখানে এক সঙ্গে দুটি দিক দেখা যায়, একটি হলো বাংলাদেশ বিমান একটি কোম্পানি, এটির সার্বিক দায়িত্ব বোর্ডের, আর এটি পরিচালিত হয় কোম্পানির আইনে। অপরদিকে বাংলাদেশ বিমানের মালিকানা হলো রাষ্ট্রের। সরকারের প্রধান প্রতিনিধি হলো মন্ত্রী। আর তিনি প্রতিনিধি হয়ে বিমানে কি হচ্ছে সেটি জানতে পারবে না এটি গ্রহণযোগ্য নয়।
এদিকে বিষয়টি দুঃখজনক বলে মনে করেন সাবেক বেসামরিক বিমানমন্ত্রী জিএম কাদেরও। ঘটনাটি খতিয়ে দেখতে মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ফারুক খান। তিনি বলেন, আমি মনে করি মন্ত্রীর পুনঃনিয়োগের ব্যাপারটি দেখার কথা। কেনো এই ব্যাপারটি মন্ত্রীকে জানানো হয়নি সে ব্যাপারে তার উচিত বিমানের বোর্ডের সঙ্গে কথা বলা।  এভিয়েশন খাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সব অনিয়ম অভিযোগ আমলে নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর প্রতিটি কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠা এখন সময়ের দাবি।rtv

পড়া হয়েছে ৩৭ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ