আজ ২০ মার্চ, ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনাসমুহ।

মার্চ ২০, ২০১৬, ১১:১৭ পূর্বাহ্ণ

১৯৫৬ সালের এ দিনে তিউনিসিয়া ফ্রান্সের হাত থেকে স্বাধীনতা অর্জন করে। হাবিব বিন আলি বরগুইবা সময় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশটি পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ১৮৮১ সাল থেকে ১৯৫৬ সালে স্বাধীনতা অর্জনের পূর্ব পর্যন্ত তিউনিসিয়া ফ্রান্সের উপনিবেশ ছিলো। উত্তর আফ্রিকার এই দেশটির রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম এবং তিউনিসিয়ার জনগণের প্রায় সবাই মুসলমান। কৌশলগত অবস্থানের কারণে ফিনিসীয়, কার্থেজীয়, রোমান, আরব এবং উসমানিয় সম্রাজ্য এই দেশ শাসন করেছে।

১৭২৭ সালের এ দিনে বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানী, পদার্থবিদ, গণিতবিদ এবং সর্বকালের অন্যতম শ্রেষ্ট প্রজ্ঞাবান ব্যক্তিত্ব স্যার আইজ্যাক নিউটন পরলোকগমন করেন। তার জন্ম হয়েছিলো ১৬৪২ সালে। ১৬৬১ সালে তিনি ইংল্যান্ডের বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয় ক্যামব্রিজে ভর্তি হন। ১৯৬৯ সালে তিনি ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের লুকাসিয়ান প্রফেসর অব ম্যাথম্যাটিকস হন। ১৬৯৬ সাল পর্যন্ত তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনার সাথে জড়িত ছিলেন। তার জীবনের এ সময়কে সবচেয়ে সৃজনশীল হিসেবে গণ্য করা হয়। দুই থেকে তিন বছর গভীর পরিশ্রমের ফলে তিনি ম্যাথামেটিক্যাল প্রিন্সিপালস অব ন্যাচারাল ফিলসফি গ্রন্থ রচনা করেন। সাধারণ ভাবে এ গ্রন্থটি প্রিন্সিপিয়া নামে পরিচিত। তবে তার এই পুস্তক ১৬৮৭ সালের আগে প্রকাশিত হয় নি। তার মধ্যাকর্ষণ শক্তি ব্যাপারটি তার অন্যতম সেরা আবিষ্কার হিসেবে গণ্য করা হয়। ১৬৬৫ বা ১৬৬৬ সালের মধ্যে তিনি মধ্যাকর্ষণ শক্তি সর্ম্পকে গাণিতিক হিসেব উপস্থাপন করেন।

১৯৯৫ সালের এ দিনে জাপানের রাজধানী টোকিওতে ওম শিনরিকিও গোষ্ঠি সদস্যরা জাপানের রাজধানী টোকিওর পাতাল রেলে প্রাণঘাতী গ্যাস সারিনের আক্রমণ চালায়। এই হামলায় ১২জন নিহত হয়। সারিন গ্যাসে আক্রান্ত সাড়ে ৫ হাজার ব্যক্তিকে জাপানের বিভিন্ন হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়। বেশির ভাগ ব্যক্তিই পরে সুস্থ হয়ে উঠলেও সারিন গ্যাসে আক্রান্ত অনেকেরই চোখ, ফুসফুস এবং পরিপাকতন্ত্র স্থায়ী ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। তবে এই হামলা সাথে জড়িত ওম সদস্যরা সারিন গ্যাস প্রতিহত করার মতো অষুধ আগে ভাগে গ্রহণ করায় তাদের কোনা ক্ষতি হয় নি। পুলিশ পরে ওম শিনরিকিও সদর দফতরে হামলা করে তাদের গুরু অন্ধ শোকো আশারা সহ শত শত সদস্যকে গ্রেফতার করে।

১৯৩২ সালের এ দিনে ইলিয়া ইভানোভিচ ইভানভ পরলোকগমন করেন। অধূনালুপ্ত সোভিয়েত ইউনিয়নের এই জীব বিজ্ঞানী গৃহপালিত প্রাণীর কৃত্রিম প্রজননের কার্যকর পদ্ধতি বের করেন। এই পদ্ধতি প্রথম আবিষ্কার করেছিলেন, স্পলানজানি। ১৯০১ সালে ইভানভ রেসের ঘোড়ার জন্য বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্র স্থাপন করেন। এরপর গৃহপালিত প্রাণীর প্রজননের জন্য তার পদ্ধতি ব্যাপক ভাবে ব্যবহৃত হয়েছে। তবে ২০০৫ সালে মস্কোর দৈনিকগুলোতে এ বিজ্ঞানী সর্ম্পকে লোমহর্ষক খবর পরিবেশিত হয়েছিলো।

সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেংগে যাওয়ার পর প্রকাশিত গোপন দলিল পত্রের ভিত্তিতে বলা হয়েছে, সোভিয়েত স্বৈরশাসক স্টালিন অজেয় যোদ্ধা তৈরির বাসনায় এ বিজ্ঞানীকে ব্যবহার করেছিলেন। তার নির্দেশে মানব দেহে বানরের বীর্য প্রবেশ করিয়ে এ রকম যোদ্ধা তৈরির ব্যর্থ পরীক্ষা চালানো হয়। সে পরীক্ষা ব্যর্থ হওয়ার পর ১৯৩১ সালে ইভানভকে কাজাখস্তানে নির্বাসনে পাঠানো হয়। তিনি সেখানেই পরলোকগমন করেন।

১৩৫১ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে মুহাম্মদ তুঘলকের (দ্বিতীয়) মৃত্যু।

১৪১৩ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ইংল্যান্ডের রাজা চতুর্থ হেনরির মৃত্যু।

১৬১৫ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে মোগল সম্রাট শাহজাহানের প্রথম পুত্র দারাশিকোরে জন্ম।

১৬৮৬ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে কলকাতার সুতানটি গ্রামে প্রথম ব্রিটিশ পতাকা উত্তোলিত হয়।

১৭২৫ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে অটোমান সম্রাট প্রথম আবদুল হামিদের জন্ম।

১৭২৭ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে বিজ্ঞানী আইজ্যাক নিউটনের মৃত্যু।

১৭৩৯ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে নাদির শাহ দিলি্ল দখল করেন।

১৭৬০ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে অগি্নকাণ্ডে বোস্টনে ৩৪৯টি বাড়ি পুড়ে যায়।

১৮১৪ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে যুবরাজ উইলিয়াম ফ্রেডরিক নেদারল্যান্ডসের রাজা হন।

১৮১৫ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে নেপোলিয়ন প্যারিসে ফিরে আসেন এবং ফ্রান্সের সাত দিনের দায়িত্ব নেন।

১৮২৮ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে নাট্যকার হেনরিক ইবসেনের জন্ম ।

১৮৩৩ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে যুক্তরাষ্ট্র ও শ্যামদেশের মধ্যে চুক্তি হয়।

১৮৪২ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে পূর্ব বাংলার প্রথম এম এ গুরুপ্রসাদ সেনের জন্ম।

১৯২৫ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ব্রিটিশ ভারতের ভাইসরয় লর্ড জর্জ কার্জনের মৃত্যু।

১৯২৬ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হকের মৃত্যু।

১৯২৯ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে মিরাট ষড়যন্ত্র মামলায় কমিউনিস্টদের গ্রেফতার করা হয়।

১৯৩৫ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ব্রিটিশ কাউন্সিল প্রতিষ্ঠিত হয়।

২০০৩ খ্রিস্টাব্দের এই দিনে ইরাকে মার্কিন হামলা শুরু।

২০১৩ সালের এই দিনে বাংলাদেশের উনিশতম রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান মৃত্যুরবণ করেন ।

পড়া হয়েছে ৪৩৪ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ