আজ ২১ আগষ্ট ইতিহাসের পাতা থেকে নেওয়া এই দিনের কিছু ঘটনা নিম্নরূপ।

আগস্ট ২১, ২০১৬, ৬:৩৪ পূর্বাহ্ণ

২০০৪ সালের এই দিনে ঢাকায় আওয়ামী লীগের এক জনসভায় বোমা বিস্ফোরণে ২৪ জন মর্মান্তিকভাবে নিহত হয়েছিল। এ ঘটনায় আওয়ামী লীগের আরো পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছিল। বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগ অফিস প্রাঙ্গনে এ ঘটনাটি ঘটেছিল। ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছিল ১৮ জন। পরে আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভি রহমানসহ আরো ছয় জনের মৃত্যু হয়। আহতদের মধ্যে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা এখনো কানে কম শুনছেন। তিনি সেদিনের গ্রেনেড হামলায় অল্পের জন্য বেঁচে যান।

আজ থেকে ৫০ বছর আগে এই দিনে তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় ইরান, পাকিস্তান, তুরস্ক ও বৃটেনের মধ্যে সেন্টো চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই চুক্তি বাগদাদ চুক্তির স্থলাভিষিক্ত হয়। যুক্তরাষ্ট্র আনুষ্ঠানিকভাবে এই চুক্তিতে স্বাক্ষর না করলেও পর্যবেক্ষক হিসাব চুক্তির সদস্য দেশগুলোর বৈঠকে অংশ নিত। কিন্তু তারপরও যুক্তরাষ্ট্র এই জোটের বিভিন্ন সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ ও প্রভাব সৃস্টির চেষ্টা করতো। প্রকৃতপক্ষে সেন্টো চুক্তিটি ছিল সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের বিরুদ্ধে পশ্চিমা সামরিক ব্যবস্থার একটি অংশ মাত্র। ১৯৭৯ সালে ইরানে ইসলামী বিপ্লব সংঘটিত হওয়ার পর ইরান এই চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসে এবং চুক্তিটি কার্যত অকার্য হয়ে পড়ে।

আজ থেকে ৩৯ বছর আগে ইহুদীবাদী ইসরাইলীরা বিশ্বের মুসলমানদের প্রথম কেবলা মসজিদুল আকসায় অগ্নি সংযোগ করে। অগ্নিকাণ্ডের ফলে পবিত্র ও ঐতিহাসিক এই স্থাপনাটির ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়। ইসরাইলীরা এ ঘটনার জন্য একজন ইতালীয় পর্যটককে দায়ী করে এবং তাকে গ্রেফতার করে। কিন্তু তেলআবিবের একটি আদালত ঐ ইহুদীবাদী ব্যক্তিকে মানসিক রোগী বলে অভিহিত করে তাকে ছেড়ে দেয়ার নির্দেশ দেয়। এদিকে ইসরাইল ও তাদের পশ্চিমা মিত্রদের ব্যাপক অপপ্রচার সত্ত্বেও বিশ্বের মুসলমানরা বায়তুল মোকাদ্দাসে অগ্নিসংযোগের বিরুদ্ধে ব্যাপক প্রতিবাদ বিক্ষোভ অব্যাহত রাখে। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মুসলিম দেশগুলোর সমন্বয়ে ইসলামী সম্মেলন সংস্থা বা ও.আই.সি. গঠিত হয়।

১৯৯১ সালের এই দিনে এস্তোনিয়া সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে আলাদা হয়ে স্বাধীনতার ঘোষণা দেয়। এর আগে সোভিয়েত ইউনিয়নে কমিউনিষ্ট বিপ্লব এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার পর এস্তোনিয়া প্রথমবার ১৯১৮ সালে স্বাধীন হয়। কিন্তু ১৯৩৯ সালে হিটলার ও ষ্ট্যালিনের মধ্যে এক গোপন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ঐ চুক্তি অনুযায়ী এস্তোনিয়ার উপর সোভিয়েত ইউনিয়নের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হয়। এর এক বছর পর সেখানে একটি লোক দেখনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এবং মস্কোর অনুগত সরকার প্রতিষ্ঠিত হয়। এরপর ১৯৮৯ সলে এস্তোনিয়া স্বাধীনতা লাভের জন্য চেষ্টা শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৯১ সালের মার্চ মাসে অনুষ্ঠিত এক গণভোটে প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষ স্বাধীনতার পক্ষে রায় দেয় এবং আজকের এই দিনে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার ঘোষণা দেয়া হয়।

ইতিহাসের এই দিনে সংঘটিত আরো কিছু ঘটনার মধ্যে রয়েছে,
১৫৬৩ খ্রীস্টাব্দে মক্কা মোকাররমা বড় ধরণের বন্যায় প্লাবিত হয়।
১৬১৩ খ্রীস্টাব্দে বারো ভুঁইয়ার একজন বীর ঈশা খাঁ ইন্তেকাল করেন।
১৯১৫ সালে ইতালী তুরস্কের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে।

পড়া হয়েছে ৩৩৬ বার

( বি:দ্রঃ আপনভূবন ডটকম -এ প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও, কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। কপিরাইট © সকল সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আপনভূবন ডটকম )

আপনার ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করে মতামত প্রদান করতে পারেনঃ