আন্দোলনের রাজনীতি--আবু সাঈদ মোঃ মাছুম কবীর সরদার এর ব্লগ--আপন ভূবন ব্লগ - আপন প্রতিভার সন্ধানে 



প্রথম পাতা » আবু সাঈদ মোঃ মাছুম কবীর সরদার এর ব্লগ » আন্দোলনের রাজনীতি

আন্দোলনের রাজনীতি

লিখেছেন : আবু সাঈদ মোঃ মাছুম কবীর সরদার       ১৬ এপ্রিল ২০১৮ রাত ১১:১১


০টি মন্তব্য   ২৮৭ বার পড়া হয়েছে


নির্বাচনকে সামনে রেখে ক্ষমতালোভীদের নাটক দেখার সময় এসেছে।
কোটাভিত্তিক নাটকে দু একটা লাশ পরলে নাটকটা আরও ভালো জমতো।
চিন্তার কোন কারন নাই। আরও দৃশ্য তো সামনে আছে। নাটক তো শুরু।

আন্দোলন মানে যে কি তা কয়জন শ্লোগানধারী জানে ? এটা নেতাপ্রেমিদের কথায় নাচা নাচি ছাড়া আর কিছু না । মারো কাটো ধরোর পালাবদল ছাড়া আর কিছুই না। সাধারণ মানুষের ভাগ্য নিয়ে কেউ চিন্তা করে না চিন্তা করে শুধু ক্ষমতার কথা। দোহাই দেয় গণতন্ত্র ধর্মতন্ত্র সমাজতন্ত্র ইত্যাদি ইত্যাদি...।

আচ্ছা কোন নেতা আন্দোলনে মারা গেছে? কোন নেতার সন্তান জীবন দিয়েছে? কোন নেতার ভাই জীবন দিয়েছে? যদিওবা দেয় তবে তারা কত জন?
আর কর্মী বা সাধারণ জনগণ বা ছাত্র কত জন? আমি যতটুকু জানি তাতে মনে হয় সাধারণ জীবনের ক্ষতিই বেশী হয়েছে? আর এই নেতাপ্রেমীরা তাদের পরিবারকে নিরাপদে রেখে বিভিন্ন কে্ৗশলে টাকার বিনিময়ে মরনাস্ত্র হাতে দিয়ে কর্মীদের মাঠে নামায়। কর্মীরা হিরো হবার স্বপ্ন দেখে। বেশীরভাগ হিরোই হয়ে যায় লাশ যে লাশ দিয়ে ব্যবসা করছে ওরা। বাহ বাহ চমৎকার।

কি মনে হয় তোদের? ওহ তোরা তো আন্দোলনের টানে বিভোর। শরীরে টি শার্টে কিছু না লেখে রাস্তায় না নামলে তো আর হিরো হতে পারবি না। আন্দোলন সফল হলে তোদের নেতারা পাবে গদি পাবে সুনাম অর্থ যশ আর ক্ষমতা। মাঝখানে মরবে সাধারণ ছাত্র জনগণ কুলি মজুর। আগুনে ঝলসানো কিছু দেহ। টুহটার ইউটিউব আর ফেসবুকে চলবে ফটোশপ আর আপলোড সাথে থাকবে হাজার হাজার লাইক আর হাজার হাজার গালি যেন বাংলা একটি নোংরা ভাষা ছাড়া আর কিছুই না। পত্রিকার ব্যবসা হবে রম রমা । বিশ্ব বিবেককে জানানো হবে এই জঘন্য আন্দোলনের কথা। যা আমরা অতীতে দেখেছি। দায়ী করেছি একে অপরকে। সবাই যেন ধোয়া তুলসি পাতা। কারুরই কোন দোষা নেই।

আমরা অনেক আন্দোলন পেরিয়ে এসেছি। অনেকে মারা গেছে এই ৪৭ বছরে। আসলে কি কোন কিছুর পরিবর্তন হয়েছে? ঘুষ, দূর্ণীতি, টেন্ডারী, রংবাজী, ধর্ম্মকে জীম্মি করে উদ্দেশ্য হাসিল, খুন, ধর্ষণ কোন কিছু কি বন্ধ হয়েছে বা কমেছে? ইতিহাস বিকৃত হয়েছে বার বার।মিরজাফরেরা ক্ষমতা হাতে পেয়ে তাদের সন্তানদের শুনিয়েছে মনগড়া ইতিহাস। গুলিয়ে দিয়েছে তোদের মাথা। এখনও মাথা গোলানোর ঘোল ওরা তৈরী করছে। তাহলে তোরা জানবি কি করে দেশের সঠিক ইতিহাস?

আসলে কি জানিস? নিজের কাজ নিজে কর নিজের জীবন তৈরী কর। অনেক সফল ব্যক্তিদের জীবন কাহিনিতে আছে তারা কত কষ্ট করেছে। কিছু স্বার্থান্বেষী মহলের সফলতার জন্য কেন তোর আর তোর বন্ধুর জীবন নষ্ট করার দিকে অগ্রাসী হচ্ছিস? অনেক কিছু জানার বাকী আছে তোদের। বাংলাদেশটাকে আগে জানতে চেস্টা কর।তারপর সমস্যা নিয়ে চিন্তা করিস। তোদের ভাব দেখে মনে হয় তোরা বিশ্বের বড় বড় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। শুন্য হাড়ি বাজে বেশী আর কত বার প্রমাণ করবি তোরা?




ব্লগ লিখছেন ৫ বছর ১ মাস ১ দিন, মোট পোষ্ট ৫৩টি, মন্তব্য করেছেন ৪৯টি,          



এই ধরনের আরো কিছু পোস্ট.


রাষ্ট্র তার সেবায় সর্বোচ্চ মেধাবীদের বেছে নিক

পনের আগস্টের কুশীলবদের মুখোশ উন্মোচন করতেই হবে

যে নিজের জন্মদাতাকে নিয়ে দ্বিধান্বিত সে অন্যের জন্মদাতাকেই পরম পূজনীয় জ্ঞান করবে এটাই তো স্বাভাবিক

বনরুই---- গ্রাম হতে হারিয়ে যাওয়া গ্রামীণ এক অদ্ভুদ স্তন্যপায়ী প্রাণী।

দাদাদের দাদা গিরি ,হাসিনা গংদের ভারত প্রীতি
 

মন্তব্য সমূহঃ

মন্তব্য করতে লগিন করুন।

ইমেইল: পাসওয়ার্ড: রেজিস্ট্রেশন করুন